সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০১:০৬ অপরাহ্ন
টপ নিউজ
বজ্রপাতে চাচা-ভাতিজার মৃত্যু চাল নিয়ে বাড়ী ফিরা হল না মসজিদের মোয়াজ্জিন রুহুল কাদেরের চকরিয়ায় ৪ মামলায় পরোয়ানাভুক্ত আসামী জমিরকে পুলিশ থেকে ছিনিয়ে নিয়েছে সন্ত্রাসীরা শপথ নিলেন চকরিয়া পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলরবৃন্দ চকরিয়ায় সর্ববৃহৎ নারী উদ্যোক্তা সংগঠন হস্তশিল্প পরিবারের বর্ষপূর্তি পালিত চকরিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে প্রায় ১৫হাজার টিকা প্রদানের ঘোষণা পেকুয়ায় লোকালয়ে আসা ১০ ফুট লম্বা অজগর উদ্ধার কবি মানিক বৈরাগীর উদ্যোগে কক্সবাজারের দুইটি পাঠাগার পেয়েছে অসংখ্য বই চিত্রশিল্পী সরওয়ার হত্যার বিচারের দাবীতে মানবন্ধন সক্রিয় চুর সিন্ডিকেটঃ আতঙ্কে খুটাখালীবাসী

পেকুয়ায় কিশোরকে আটকিয়ে পড়ালো বিয়ে

Reporter Name
  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ২৪৬ দেখুন

 

পেকুয়া প্রতিনিধি:
পেকুয়ায় সাইফুল ইসলাম (১৮) নামক কিশোরকে আটকিয়ে পড়ালো বিয়ে। রাস্তা থেকে সিএনজিযোগে একদল দুবৃর্ত্তরা ওই কিশোরকে অস্ত্র ঠেকিয়ে নিয়ে যায়। এরপর পাহাড়ের পাদদেশে একটি বাড়িতে আটকিয়ে রাখে। প্রায় ৪ দিন আটক থাকার পর ওই কিশোরকে বিয়ের পিঁড়িতে রাজি করানো হয়। অপ্রাপ্ত বয়ষ্ক কিশোরী ও কিশোরের বিয়ে হয়েছে নন জুড়িসিয়াল স্ট্যাম্পর মাধ্যমে। গত ১ মাস আগে উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নের পাহাড়িয়াখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সুত্র জানায়, বারবাকিয়া ইউনিয়নের পাহাড়িয়াখালী গ্রামে অপ্রাপ্ত বয়স্ক কনে ও বরের বিয়ে হয়েছে। সুত্র জানিয়েছেন, সদর ইউনিয়নের মেহেরনামা বাজারপাড়ার আবু তাহেরের পুত্র সাইফুল ইসলাম (১৮) ও পাহাড়িয়াখালীর মোহাম্মদের মেয়ে শারমিন আক্তার (১৭) এর মধ্যে বিবাহ হয়েছে। সাইফুল ইসলাম আত্মীয়তার সম্পর্কে গত কয়েকমাস আগে থেকে পাহাড়িয়াখালী মোহাম্মদের বাড়িতে যাওয়া আসা করছিল। ওই সুবাধে মোহাম্মদের মেয়ে শারমিন আক্তার ও সাইফুলের মধ্যে মনের ভাব তৈরী হয়। এ দিকে গত ১ মাস আগে সাইফুল সদর ইউনিয়নের মেহেরনামা বাজারপাড়ায় অবস্থান করছিল এ খবর শারমিনের আত্মীয়রা নিশ্চিত হন। দুপুরের দিকে একটি সিএনজি নিয়ে ৪/৫ জনের ভাড়াটে লোকজন মেহেরনামায় গিয়ে সাইফুলকে জোরপূর্বক গাড়ীতে তোলে নিয়ে যায়। এ সময় বারবাকিয়া ইউনিয়নের পাহাড়িয়াখালীতে মোহাম্মদের বাড়িতে আটকিয়ে রাখে। এমনকি ৪ দিন পর মোহাম্মদের মেয়ে শারমিন আক্তার ও সাইফুলের বিয়ের আয়োজন করা হয়। একটি ননজুড়িসিয়াল স্ট্যাম্পে বিয়ের চুক্তিনামা লিখা হয়েছে। শর্তের ভিত্তিতে ৪ লক্ষ টাকা দেনমোহর ধার্য্য করা হয়। অর্ধেক নগদ ও অর্ধেক বকেয়ার ভিত্তিতে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের স্বাক্ষী রাখা হয়েছে। এ ব্যাপারে সাইফুল ইসলাম জানান, আমার বয়স হয়েছে ১৮ বছর। আমি বারবাকিয়ায় গিয়েছিলাম ২ বার। কিন্তু তারা এতবড় সর্বনাশ ঘটাবে ভাবতেও পারি নাই। আমি বেকার। আমার বাবাও অসুস্থ। রাস্তা দিয়ে হাঁটছিলাম। হঠাৎ দেখতে পাই সিএনজি নিয়ে কয়েকজন অপরিচিত লোকজন আমার সামনে হাজির। তারা অস্ত্র ঠেকিয়ে আমাকে সিএনজিতে তুলে ফেলে। এরপর বারবাকিয়ায় নিয়ে গিয়ে আমাকে তাদের বাড়িতে ৪ দিন আটকিয়ে রাখে। পরে শারমিনের সঙ্গে আমার বিয়ে পড়ায়। সাইফুলের মা মনোয়ারা বেগম জানান, আমার ছেলের এখনো বিয়ের বয়স হয়নি। বুঝার মতো বিবেক শক্তি তার হয়নি। জোরপূর্বক তুলে নিয়ে গিয়ে বিয়ে পড়িয়েছে। আমরা ওই দিন রাতে পাহাড়িয়াখালীতে গিয়েছিলাম। কিন্তু তারা সেখানে যায়নি বলে অস্বীকার করেছিল। ১ মাস পরে জেনেছি আমার ছেলেকে মেয়ের সাথে জোরপূর্বক বিয়ে দিয়েছে।
টইটং ইউপি নির্বাচন
ঝুঁকিপূর্ন ভোট কেন্দ্র ৫ টি, ভোটাররা চাইলেন ম্যাজিষ্ট্রেট
পেকুয়া প্রতিনিধি:
পেকুয়ায় টইটং ইউপি নির্বাচনে ৫ টি ভোটকেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। অবাধ ও সুষ্টু গ্রহনযোগ্য নির্বাচনের জন্য এ সব ভোটকেন্দ্রে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা তৈরীর জোরালো দাবী উঠেছে। ৫ টি কেন্দ্রের সবকটিতে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটসহ পর্যাপ্ত পরিমাণ আইন শৃংখলা বাহিনী মোতায়েনের দাবী জানান ভোটাররা। এ দিকে আগামী ২০ সেপ্টেম্বর টইটং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্টিত হবে। নির্বাচনের ভোট গ্রহণের আর মাত্র ৩ দিন বাকী। এতে করে প্রতিদ্বন্দী প্রার্থীদের মধ্যে উম্মেদনা বেড়ে গেছে। প্রচার প্রচারনায় টইটংয়ের নির্বাচনী মাঠ এখন সরগরম। পেকুয়া উপজেলায় একমাত্র টইটং ইউপিতে ভোট হচ্ছে। পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুনে টইটং সরগরম। প্রতিদিন একাধিক সমাবেশ হচ্ছে প্রতিদ্বন্দী প্রার্থীদের। মূল প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী হচ্ছেন ২ জন। তারা ২ জন টইটংয়ের হেভিওয়েট চেয়ারম্যান প্রার্থী। নৌকার মনোনীত প্রার্থী জাহেদুল ইসলাম চৌং ও চশমা প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোসলেম উদ্দিনের মধ্যেই মূল প্রতিদ্বন্দিতা হবে। এ দিকে স্থানীয়রা জানিয়েছেন, জাহেদুল ইসলাম চৌং নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হওয়ায় নির্বাচনী আচরণ বিধিও ভঙ্গ করছেন ওই প্রার্থী। প্রতিদ্বন্দী প্রার্থীদের মধ্যে ইতিমধ্যে নুরুল আমিনসহ কয়েকজন প্রার্থী জাহেদুল ইসলাম চৌং এর বিরুদ্ধে আচরণ বিধি লঙ্গন করার অভিযোগ আনা হয়েছে। চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল আমিন ১৫ সেপ্টেম্বর পেকুয়ার কর্মরত সাংবাদিকদের নিয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ের আয়োজন করে। তিনি জাহেদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মুখ খোলেন। চশমা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী জেড এম মোসলেম উদ্দিনও আচরণ বিধি লঙ্গনের অভিযোগ উত্তাপন করেন। সুত্র জানায়, ১৬ সেপ্টেম্বর দুপুরের দিকে জাহেদুল ইসলামের সমর্থনে সড়কে মিছিল ও মোটর সাইকেল শোভাযাত্রা হয়েছে। ওই মিছিল ও শোভাযাত্রায় বহিরাগত লোকজন অংশ নিয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উপজেলার প্রত্যেক প্রান্ত থেকে দাগী, ফেরারী ও পেশীশক্তির লোকজন ওই মিছিলে জড়ো ছিল। তারা মূলত স্থানীয় ভোটার ও প্রার্থীদের ভীতি ও আতংক ছড়াতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে মিছিলে অংশ নিয়েছে। এ ব্যাপারে টইটংয়ের ভোটারদের মধ্যে অনেকে জানিয়েছেন, আমরা ভোট নিয়ে শংকিত রয়েছি। প্রশাসন আশ্বস্থ করেছেন। এরপরেও এখন যে পরিস্থিতি বিরাজ করছে মনে হচ্ছেনা আসলে সুষ্টু ভোট হবে কিনা। চেয়ারম্যান প্রার্থী জেড এম মোসলেম উদ্দিন, সুষ্টু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য প্রশাসনের কাছে লিখিত আবেদন পৌছান। ১৬ সেপ্টেম্বর রির্টানিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর আবেদনপত্র প্রেরণ করেন। ওই চেয়ারম্যান প্রার্থী তার আবেদনে উল্লেখ করেছেন, ৫ টি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ন। ক্রমান্বয়ে আরো ২ টি কেন্দ্রও ঝুঁকিতে রয়েছে। টইটং উচ্চ বিদ্যালয় ও কাশেমুল উলুম নুরানী মাদ্রাসার অবস্থান হবে ১ চেইনের মধ্যে। এ ২ টি কেন্দ্র জাহেদ চেয়ারম্যানের বাড়ির লাগোয়া। এ ২ টি কেন্দ্রে ভোটে প্রভাব বিস্তার হয়ে থাকে। এ ছাড়াও বনকানন এশাতুল উলুম মাদ্রাসা, বটতলী শফিকিয়া দাখিল মাদ্রাসার কেন্দ্রসহ ৭ নং ওয়ার্ডের ভোটকেন্দ্রটিও ঝুঁকিপূর্ন। সে দিন প্রশাসন সুষ্টু ভোটের জন্য অঙ্গীকার করেছিলেন। জনগন প্রশাসনের কর্তাদের প্রতিশ্রুতি ও বক্তব্যকে জানিয়েছিলেন সাধুবাদ। আমরা জনগনের পক্ষে সুষ্টু ভোট চাই। পেকুয়ায় আর কোন ইউনিয়নে ভোট হচ্ছেনা। জনগন প্রত্যেক কেন্দ্রের জন্য নিরাপত্তা জোরদার করনের পক্ষে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর

Design & Develop BY Coder Boss
© Copyright 2019 All rights reserved BBC Morning
Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102