মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:০৪ অপরাহ্ন

ডুলাহাজারা সরকারী বীজ বাগানের কোটি টাকার মালামাল লুট করে গোপনে আত্মসাৎ করলো ৩ কর্মচারী

Reporter Name
  • আপডেটের সময় : রবিবার, ৫ জুলাই, ২০২০
  • ১৪৬ দেখুন

মনির আহমদ, কক্সবাজার:
বাংলাদেশ বনগভেষনা ইনষ্টিটিউটের ডুলাহাজারা বীজ বাগান কেন্দ্রের কোটি টাকার মালামাল গোপন পানির দরে বিক্রী করে ৪০ লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেয়ার গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। গোপনে বিক্রি করায় সরকার হারিয়েছে কোটি টাকার রাজস্ব। এ ব্যাপারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করেছেন সচেতন মহল।
জানা যায়, বাংলাদেশ বনগভেষনা ইনষ্টিটিউটের নিয়ন্ত্রাণাধীন ১০ একর জমির উপর চকরিয়া ডুলাহাজারা বীজ বাগান কেন্দ্রটি অবস্থিত। সম্প্রতি দোহাজারী-কক্সবাজার নির্মানাধীন রেললাইনের জন্য বীজ বাগানের
অর্ধেকের বেশী এলাকা ৪ টি আবাসিক ভবন-রেষ্ট হাউজ সহ, বাগান ঘর ও বিভিন্ন স্থাপনা অধিগ্রহন করে।
রেল লাইনের জন্য অধিগ্রহন করায় ৪ টি বাসা ও অফিস ঘর আভ্যন্তরীণ ব্রীক সড়ক সমুহ উচ্ছেদের আওতায় পড়ে। ফলে মালামাল সরিয়ে নিতে নির্দেশ দেন
রেল লাইন নির্মানকারী কর্তৃপক্ষ। অভিযোগ উঠেছে উচ্ছেদকৃত এলাকা থেকে ৪ টি বাসা ও অফিস ঘর আভ্যন্তরীণ ব্রীক সড়ক সমুহ থেকে কোটি টাকার ফার্নিসার, আসবাবপত্র, ফ্রিজ, জেনারেটর সহ, ইট, বাড়ীর, দরজা, জানালা, টিন ও রড সহ অন্তত: এক কোটি টাকার মালামাল সরানো হয়। অভিযোগ উঠেছে বাংলাদেশ বনগভেষনা ইনষ্টিটিউটের


চকরিয়ার ডুলাহাজারা বীজ বাগান কেন্দ্রের নিয়ন্ত্রক এসও রিসার্জ অফিসার মোহাং মিজান উল হক, বীজ কালেক্টর মোহাম্মদ আলী এবং অপর এক কর্মচারী মিলে কোটি টাকার মালামাল স্থানীয় পাবলিকের কাছে দফায় গোপনে বিক্রী করে দিয়ে প্রায় ৩০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এমন কি বাকী দরজা, জানালা, লোহা রয়েছে তাও বিক্রী করে
দেয়া হচ্ছে। অথচ এসব মালামাল ওপেন টেন্ডারে বিক্রী করা হলে সরকার কোটি টাকা রাজস্ব পেত। বাকী মালামাল ও বিক্রীর জন্য চেষ্টা চলছে ওই এসও এবং মোহাং কর্মকর্তার নেতৃত্বে। কয়েকদিন আগে ও লক্ষাধিক ইট স্থানীয় এক ব্যক্তিকে বিক্রী করে দিয়েছেন এ খবরের ভিত্তিতে জানতে চাইলে বীজ কালেক্টর মোহাং আলী জানান, মালামাল গুলো পরিত্যক্ত ছিল তাই এসও রিসার্জ অফিসার মোহাং মিজান উল হকের সাথে পরামর্শ করে এসব মালামাল পাবলিকের কাছে বিক্রী করে দিয়েছেন।
রিসার্জ অফিসার মোহাং মিজান উল হকের সাথে কথা বলতে চেষ্টা করলে তিনি মোহাং আলীর সাথে কথা বলেন বলে লাইন কেটে দেন।
মালামাল গুলো রাজস্ব খাতে এনে নিলাম দেয়া একান্ত জরুরী মনে করছেন এলাকার সচেতন মহল। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানিয়েছেন সচেতন মহল।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর

Design & Develop BY Our BD It
© Copyright 2019 All rights reserved BBC Morning
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102